কপিরাইট অফিস নখ-দন্তহীন সাপ: আসিফ | todaybd24.com
শনিবার , ২৬ মার্চ ২০২২ | ১৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৯
  1. অন্যান্য
  2. আন্তর্জাতিক
  3. আয় করুন
  4. আলোচিত সংবাদ
  5. খুলনা
  6. খেলাধুলা
  7. চট্টগ্রাম
  8. জাতীয়
  9. জেলার খবর
  10. টিপস
  11. ঢাকা
  12. তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি
  13. ধর্ম
  14. নিউজ
  15. পরিবার
esenler korsan taksi
সর্বশেষ খবর টুডে বিডি ২৪ গুগল নিউজ চ্যানেলে।
   

কপিরাইট অফিস নখ-দন্তহীন সাপ: আসিফ

                                           প্রতিবেদক
News Desk
মার্চ ২৬, ২০২২ ৫:৪৪ অপরাহ্ন

Advertisements

দুই যুগ আগের একটি গানকে ঘিরে এই গল্প। সেই গানটি কেউই গাইতে চাইছিলেন না। তখন গানটি চেয়েছিল প্লেব্যাক সম্রাট এন্ড্রু কিশোরের কণ্ঠে বসতে। কিন্তু এন্ড্রু কিশোর তাকে গ্রহণ করেননি। তারপর গানটি গিয়েছিল সেসময়ের আরেক জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী পলাশের নিকট। পলাশও একই ব্যবহার করেন। এদের ছাড়াও গানটি সেসময় আরও গিয়েছিল কণ্ঠশিল্পী হাসান আবিদুর রেজা জুয়েলের কণ্ঠে বসতে। কিন্তু বাকিদের মতো জুয়েলও ফিরিয়ে দেন।

Advertisements
Advertisements
Advertisements

সবাই যখন গানটিকে এভাবে ফিরিয়ে দিচ্ছিলেন তখন দেখা হয় নতুন এক গায়কের সঙ্গে। গানটি তার কাছেও গেল। আর গায়কটিও নিজের কণ্ঠে তুলে নিলেন গান। আর এরপরই বেধে গেল এক তুলকালাম কাণ্ড! চারদিকে হইচই ফেলে দিয়ে গানটি সেই গায়কের কণ্ঠকে পুষ্পক রথ বানিয়ে বানের জলের মতো ছড়িয়ে গেল সারাবাংলার আনাচে কানাচে। এদেশের সকল মানুষের হৃদয়কে একসাথে নাড়িয়ে দিল সেই তরুণ গায়কের কণ্ঠ।

Advertisements
Advertisements
Advertisements

গানটি যেন বিরহী প্রেমিকদের মনের কথা বলছিল। তাই উঠতি বয়সীদের গানটি নিয়ে উন্মাদনার শেষ ছিল না। ফলস্বরূপ সেই গানের অ্যালবামটি মানুষ কিনতে লাগল মুড়ির মতো। আর যে গায়কটি এই একগান দিয়ে নেড়েচেড়ে দিলেন সারাদেশকে, সেই গায়ককে সবাই ডাকা শুরু করল বাংলা সংগীতের যুবরাজ নামে। বলছিলাম বাংলা সংগীতের দরাজ কণ্ঠের গায়ক আসিফ আকবর ও তার বিখ্যাত সেই গান ও প্রিয়ার কথা।

 

সম্প্রতি কথা হলো বাংলা গানের এই যুবরাজের সঙ্গে। কথায় কথায় উঠে এলো অনেক বিষয়। জানা গেল অনেক কিছুই। সংগীতে আসিফ আকবরের পথচলা কুমিল্লা থাকাকালীন ফিকেল বয়েজ নামের একটি ব্যান্ড গঠনের মাধ্যমে।

আরও পড়ুন:  বিয়ের পর এবার সালমান খানের বাড়ির পুত্রবধূ হয়েছেন সোনাক্ষী সিনহা?

আসিফ জানান, তিন বছরের স্থায়ীত্বকাল নিয়ে জন্ম নেওয়া এই ব্যান্ডটি এলআরবি, নগর বাউল, মাইলসের গান কাভার করে কুমিল্লা ও তার আশেপাশের জেলাগুলোতে বেশ সাড়া ফেলেছিল। পরে এদেশের সংগীত অঙ্গনে আসিফ পা রাখেন শওকত আলী ইমনের হাত ধরে রাজা নম্বর ওয়ান চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। ১৯৯৮ সালে সিনেমার গানের জন্য ইমন একটি নতুন কণ্ঠ খুঁজছিলেন। আসিফ ছিলেন সেই নতুন কণ্ঠ। তার এই কণ্ঠের সঙ্গে ইমনের পরিচয় ঘটেছিল পিন্টু নামের এক গিটারিস্টের মাধ্যমে।

 

বাংলা সংগীতে আসিফের যাত্রাটি সিনেমা দিয়ে শুরু হলেও সেসময় সংগীতাঙ্গনে বিচরণটা তার রাজার মতো ছিল না। স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে সে জীবন যাপন ছিল বেশ টানাপোড়েনের। একটা সময় আসিফের সঙ্গে দেখা হয় গীতিকার ও সুরকার ইথুন বাবুর। আসিফ একদিন স্টুডিওতে আলী আকরাম শুভর সংগীতে সিনেমার গানে কণ্ঠ দিচ্ছিলেন। ওই স্টুডিওর বাইরে তখন দাঁড়িয়েছিলেন ইথুন বাবু। আসিফের সেই দরাজ কণ্ঠ নাড়িয়ে দিয়েছিল তাকে। সেদিনই আসিফকে দিয়ে নতুন একটি অ্যালবামের পরিকল্পনা করেন তিনি। আর এই অ্যালবামেরই একটি গান ছিল ও প্রিয়া তুমি কোথায়। এরপরের গল্প সবার জানা। সে গল্পজুড়ে শুধুই জয়ের কথা, সে গল্প জুড়ে শুধুই অর্জনের ছড়াছড়ি।

সর্বশেষ - সাম্প্রতিক

//woafoame.net/4/5519413
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
izmit escort kadıköy escort ataşehir escort rize escort uşak escort amasya escort samsun escort ankara escort diyarbakır escort
sincan evden eve nakliyat