কদমতলীতে প্রেমিকের মরদেহ উদ্ধার,প্রেমিকা গ্রেফতার | todaybd24.com
শনিবার , ৪ জুন ২০২২ | ২৩শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯
  1. অন্যান্য
  2. আন্তর্জাতিক
  3. আয় করুন
  4. আলোচিত সংবাদ
  5. খুলনা
  6. খেলাধুলা
  7. চট্টগ্রাম
  8. জাতীয়
  9. জেলার খবর
  10. টিপস
  11. ঢাকা
  12. তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি
  13. ধর্ম
  14. নিউজ
  15. পরিবার
esenler korsan taksi
সর্বশেষ খবর টুডে বিডি ২৪ গুগল নিউজ চ্যানেলে।
   

কদমতলীতে প্রেমিকের মরদেহ উদ্ধার,প্রেমিকা গ্রেফতার

                                           প্রতিবেদক
টুডে বিডি ২৪
জুন ৪, ২০২২ ৯:২৭ পূর্বাহ্ন

Advertisements

রাজধানীর কদমতলীতে প্রেমিকার বাসা থেকে আশিকুল হক পিন্টু (৩১) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পিন্টু একটি ইংরেজি দৈনিক পত্রিকায় সার্কুলেশন ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এই ঘটনায় মৃত যুবকের ভাই বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা করেছেন। এরপর মৃত যুবকের প্রেমিকা শাফিয়া বেগমকে (২৭) গ্রেফতার করা হয়।

Advertisements
Advertisements
Advertisements

শুক্রবার (৩ জুন) সন্ধ্যায় তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

Advertisements
Advertisements
Advertisements

পিন্টুর বড়ভাই আরিফুল হক চৌধুরী দাবি করেন, পিন্টুকে খাবারের সঙ্গে বিষাক্ত অথবা নেশা জাতীয় কিছু খাইয়ে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে কদমতলী মাতুয়াইল মেডিকেল গলির একটি ভবনের পাঁচতলা থেকে পিন্টুর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

কদমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রলয় কুমার সাহা বলেন, পিন্টুর শরীরে ক্ষতের কোনো চিহ্ন পাওয়া যায়নি। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে কদমতলী থানার ওসি বলেন, শাফিয়া নামের এক তরুণী তার ভাবিসহ মেডিকেল গলির ওই বাড়িতে বসবাস করেন। ভাবি গ্রামের বাড়িতে যাওয়ায় ওই তরুণী বাসায় একাই ছিলেন। শাফিয়াকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, পিন্টু বৃহস্পতিবার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে ওই বাসায় আসেন। বাসায় আসার কিছুক্ষণ পর থেকে বমি বমি ভাব ও অসুস্থতাবোধ করেন পিন্টু। রাত ৪টার দিকে পিন্টু চরম অসুস্থ হয়ে পড়েন।

আরও পড়ুন:  সরিষাবাড়ীতে বান্ধবী বিয়ে করলেন বান্ধবীকে, অতঃপর….

পরে বাসার দারোয়ানসহ ওই বাসার অন্যদের ডাকেন শাফিয়া। শাফিয়ার কান্নাকাটি ও চেঁচামেচি শুনে লোকজন এসে দেখেন ওই যুবক মারা গেছেন। পরে থানায় এসে আমাদের সংবাদ দেন শাফিয়া।

ওসি প্রলয় কুমার সাহা আরও বলেন, শাফিয়া জানিয়েছেন, তিন মাস আগে মোবাইল ফোনে কথোপকথনের মাধ্যমে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠার পর অন্য জায়গায় তাদের দেখা হলেও এই প্রথম বাসায় আসেন পিন্টু।

অভিযুক্ত শাফিয়া বেগমের বাড়ি মুন্সিগঞ্জে। তিনি কদমতলীতে ভাইয়ের বাসায় থাকতেন। এর আগে শাফিয়ার বিয়ে হলেও সেখানে তালাক হয়ে যায়। তার একটি কন্যাসন্তানও আছে।

সর্বশেষ - রাজনীতি

আপনার জন্য নির্বাচিত
//nossairt.net/4/5519413
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
izmit escort kadıköy escort ataşehir escort rize escort uşak escort amasya escort samsun escort ankara escort diyarbakır escort
sincan evden eve nakliyat