৫৭ জেলা পরিষদে ভোট আজ আগের রাতেই হামলা ভাঙচুর গুলি | todaybd24.com
সোমবার , ১৭ অক্টোবর ২০২২ | ২১শে মাঘ ১৪২৯
  1. Tech
  2. uncategorized
  3. অন্যান্য
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আয় করুন
  6. আলোচিত সংবাদ
  7. খুলনা
  8. খেলাধুলা
  9. চট্টগ্রাম
  10. জাতীয়
  11. জেলার খবর
  12. টিপস
  13. ঢাকা
  14. তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি
  15. ধর্ম
eryaman evden eve nakliyat gümüs alanlar Korsan taksi Esenler korsan taksi hile.fun
সর্বশেষ খবর টুডে বিডি ২৪ গুগল নিউজ চ্যানেলে।
   

৫৭ জেলা পরিষদে ভোট আজ আগের রাতেই হামলা ভাঙচুর গুলি

                                           প্রতিবেদক
টুডে বিডি ২৪
অক্টোবর ১৭, ২০২২ ৯:৫৬ পূর্বাহ্ণ

Advertisements

দেশের ৫৭টি জেলা পরিষদ নির্বাচনে আজ ভোট গ্রহণ হবে। এর আগেই শনিবার রাতে কয়েকটি স্থানে প্রতিপক্ষের ওপর হামলা, ভাঙচুর, গুলি ও মারধরের ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া ভোটের মাঠে সংসদ সদস্যদের সরাসরি প্রভাব বিস্তার, প্রতিপক্ষকে হুমকিধমকি ও আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ ছিল আগে থেকেই। তাই আজকের ভোটগ্রহণ ঘিরে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা তৈরি হয়েছে। নড়াইলে ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় সংসদ সদস্য কবিরুল হক মুক্তির নেতৃত্বে শনিবার রাতে পৌরভবনে হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় হামলাকারীরা গুলিবর্ষণ করে এবং আওয়ামী লীগ প্রার্থীর নির্বাচনি কাজে ব্যবহৃত দুটি প্রাইভেট কার ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় এমপি মুক্তিকে প্রধান আসামি করে থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া পঞ্চগড়ে শনিবার রাতে দুই স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর বাসভবন ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হেলমেট পরা একদল দুর্বৃত্ত হামলা চালিয়েছে। আওয়ামী লীগের প্রার্থীর লোকজন এ হামলা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কুড়িগ্রামে সংরক্ষিত মহিলা সদস্য সুফিয়া খাতুনের প্রচারণায় হামলার ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ। কক্সবাজারের রামুতে শতাধিক ভোটারকে তিনটি বাস ও পাঁচটি মাইক্রোতে ‘আনন্দভ্রমণে’ পাঠিয়ে দিয়েছেন বলে স্থানীয় সংসদ-সদস্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আরও পড়ুন:  বিএনপি রাজপথে দাঁড়াতে না পারলে সমাবেশের আগে বাধা কেন: রিজভী
Advertisements
Advertisements
Advertisements
Advertisements

এদিকে সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ পরিবেশে জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের সব প্রস্তুতি নিয়েছে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সকাল ৯টা থেকে টানা ২টা পর্যন্ত ইলেকট্রনিক ভোট মেশিন-ইভিএমে ভোট নেওয়া হবে। নির্বাচন কমিশন থেকে সরাসরি মনিটরিংয়ে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে সিসিটিভি স্থাপন করা হয়েছে। এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ৯২ জন, সদস্য পদে এক হাজার ৪৮৫ জন ও সংরক্ষিত পদে ৬০৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এতে মোট ভোটার ৬০ হাজার ৮৬৬ জন। ইসির যুগ্ম সচিব (জনসংযোগ) এসএম আসাদুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সিসিটিভি ও ইভিএম মেশিন যথাযথভাবে সচল রাখার স্বার্থে এবং ভোটাররা যাতে সুষ্ঠুভাবে তাদের ভোট প্রয়োগ করতে পারেন সেজন্য ভোটকেন্দ্র সংশ্লিষ্ট উপজেলা সদরে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

Advertisements
Advertisements

ইসি জানিয়েছে, জেলা পরিষদ নির্বাচনে ২৬ জন চেয়ারম্যান, ১৮ জন মহিলা সদস্য এবং ৬৫ জন সাধারণ সদস্য বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নোয়াখালী জেলা পরিষদ নির্বাচন আদালতের নির্দেশনায় স্থগিত করা হয়েছে। ভোলা ও ফেনী জেলার সব পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছে। ফলে এ দুই জেলায় কোনো নির্বাচনের প্রয়োজন পড়বে না। এ নির্বাচনে ৫৭টি জেলায় সাধারণ ওয়ার্ড সংখ্যা ৪৪৮টি ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড ১৬৬টি। এতে ভোট কেন্দ্র ৪৬২টি ও ভোট কক্ষ ৯২৫টি।

ইসি আরও জানিয়েছে, ভোট কেন্দ্রের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে প্রতিটি কেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ৭ জন সদস্য মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি। প্রতিটি ভোট কেন্দ্রের জন্য পুলিশ, এপিবিএন ও ব্যাটালিয়ন আনসারের সমন্বয়ে একটি করে স্ট্রাইকিং ফোর্স ও র‌্যাবের একটি করে স্ট্রাইকিং ফোর্স মোতায়েন থাকবে। এছাড়া বৃহত্তর ১৯টি জেলায় দুটি প্লাটুন ও অন্যান্য জেলায় এক প্লাটুন বিজিবি রিজার্ভ ফোর্স হিসেবে মোতায়েন থাকবে। এছাড়া পর্যাপ্ত সংখ্যক নির্বাহী ও বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন।

নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে ভোটকক্ষে ভোটাররা যাতে মোবাইল ফোন নিয়ে প্রবেশ করতে না পারে অথবা ভোটকক্ষে ভোটদান বিশেষ করে গোপন কক্ষে ভোট প্রদানের ছবি তুলতে না পারে তা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। দেশের ইতিহাসে দ্বিতীয় বারের মতো জেলা পরিষদ নির্বাচনের তফশিল ঘোষণা হয় গত ২৩ আগস্ট। পার্বত্য তিন জেলা বাদে দেশের ৬১টি জেলা পরিষদ নির্বাচনের লক্ষ্যে এ তফশিল ঘোষণা করা হয়।

ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

নড়াইল : কালিয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক আহ্বায়ক ও সালামাবাদ ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান শামীম আহম্মেদ বলেন, শনিবার রাত ১০টায় আ.লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী অ্যাড. সুবাস চন্দ্র বোসের নির্বাচনি প্রচারণা শেষে কালিয়া পৌর ভবনে মেয়র মো. ওয়াহিদুজ্জামান হীরাকে নিয়ে আমরা দলীয় প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনি কর্মপরিকল্পনা ঠিক করছিলাম। ঠিক তখন এমপি মুক্তি ৫০-৬০ জনের একটি সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে আমাদের ওপর হামলা, গুলিবর্ষণ করে। তারা দলীয় প্রার্থীর নির্বাচনি কাজে ব্যবহৃত দুটি প্রাইভেট কার ভাঙচুর করে। তিনি জেলা পরিষদ নির্বাচনে তার পছন্দের প্রার্থীকে বিজয়ী করতে এ হামলা ও আমাদের প্রাণনাশের চেষ্টা চালায়। আমি তাকে প্রধান আসামি করে ৩৪ জনের বিরুদ্ধে থানায় একটি অভিযোগ করেছি। কালিয়া পৌর মেয়র ওয়াহিদুজ্জামান হীরা বলেন, এমপি মুক্তি পরিকল্পিতভাবে বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ করে তার সমর্থিত সাধারণ সদস্য প্রার্থী রবিউল ইসলাম খানকে সঙ্গে নিয়ে পৌর ভবনে হামলা করেছে। আ.লীগ দলীয় প্রার্থীর নির্বাচনি প্রচারণার গাড়ি ভাঙচুর করেছে। বিষয়টি সিসিটিভি ফুটেজে ধারণ করা আছে।

কালিয়া থানার ওসি শেখ তাসমীম আলম বলেন, কালিয়া পৌরভবনে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় নড়াইল-১ আসনের এমপি ৩৪ জনের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্তসাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে নড়াইল-১ আসনের সংসদ সদস্য কবিরুল হক মুক্তির সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

পঞ্চগড় : শনিবার রাতে দুই স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর বাসভবন ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হেলমেট পরা একদল দুর্বৃত্ত হামলা চালিয়েছে। এ সময় বাড়ির দারোয়ানকে মারধর করা হয়। তারা হলেন-পঞ্চগড় চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রেসিডেন্ট আবদুল হান্নান শেখ ও পঞ্চগড় বিসিকনগর টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের অধ্যক্ষ এম দেলদার রহমান দিলু।

স্বতন্ত্র প্রার্থী এম দেলদার রহমান দিলু বলেন, ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীর সপক্ষে একদল সমথক উচ্চস্বরে শব্দ করে মোটরসাইকেল বহর নিয়ে আমার শিংপাড়ার বাসভবনে গিয়ে আমাকে খোঁজে এবং গালিগালাজ করে। দিলুর স্ত্রী শামিমা নাজনীন বলেন, একদল দুর্বৃত্ত মোটরসাইকেল বহর নিয়ে আসে। বাসার সামনে এসে তারা চিৎকার করে আমার স্বামীর নাম ধরে ডাকে এবং তাকে ঘর থেকে বেরিয়ে আসতে বলে। এ সময় তারা গালিগালাজ করে এবং বাইরের দরজায় লাথি মারে। অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল হান্নান শেখের বাড়ির দারোয়ান আবদুল হাই বলেন, ৩০-৪০টি মোটরসাইকেলে হেলমেট পরা কিছু লোক এসে বাসার দরজায় লাথি মারে। দরজা খুললে তারা আমাকে মারধর এবং গালিগালাজ করে। একই সময় বাসায় ইটপাটকেলও নিক্ষেপ করে তারা। আবদুল হান্নান শেখ বলেন, দুর্বৃত্তরা শহরে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়েও ইটপাটকেল নিক্ষেপ নিক্ষেপ করেছে এবং গালিগালাজ করেছে। বিষয়টি আমি লিখিতভাবে জেলা রিটার্নিং অফিসারসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জানিয়েছি।

এ বিষয়ে কথা বলতে আওয়ামী লীগে দলীয় প্রার্থী জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক আবু তোয়বুর রহমানের মোবাইলে কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি। তবে তার নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক আবু সারোয়ার বকুল জানান, মোটরসাইকেল শোডাউন করার কথা ছিল, তবে এরকম কোনো বিষয় জানেন না তিনি। পুলিশ সুপার এসএম সিরাজুল হুদা বলেন, আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব। পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম বলেন, যারা এটি করছে তাদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

রামু (কক্সবাজার) : শনিবার সকালে স্থানীয় এমপি সাইমুম সরওয়ার কমলের রামুর বাসভবন থেকে তিনটি বাস ও ৫টি মাইক্রোতে শতাধিক ভোটারকে রাঙামাটি নিয়ে যাওয়া হয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসব ভোটারের কয়েকজনের সঙ্গে কথা হয়েছে যুগান্তরের। তারা নাম প্রকাশ না করার শর্তে যুগান্তরকে জানান, অনেকটা জোর করেই তাদের ‘আনন্দভ্রমণে’ নেওয়া হয়েছে। তাদের প্রথমে রাঙামাটি নেওয়া হয়। পরে সেখান থেকে রোববার সন্ধ্যায় বান্দরবান নেওয়া হয়েছে। আজ তাদের সবাইকে সরাসরি ভোটকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হবে এবং সদস্য প্রার্থী ফরিদুল আলমকে ভোট দিতে বাধ্য করা হবে। তাদের সঙ্গে ভ্রমণে প্রার্থী ফরিদুলও রয়েছেন বলে জানান তারা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ইউপি সদস্য যুগান্তরকে জানান, ওই ‘আনন্দভ্রমণে’ না গেলে মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করার হুমকি দেওয়া হয়েছে তাকে। রামু উপজেলা থেকে সদস্য প্রার্থী শামশুল আলম মন্ডল বলেন, এমপি কমল নির্বাচনি কোনো আইন-কানুনের পরোয়াই করছেন না। আমাকে এবং আমার ভোটারদের প্রকাশ্যে হুমকি ও ভয় প্রদর্শন করা হচ্ছে।

জেলা নির্বাচন অফিসার ও কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে সহকারী রিটার্নিং অফিসার এসএম শাহাদাৎ হোসাইন জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে সদস্য প্রার্থী ফরিদুল আলম এবং কক্সবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমলের মোবাইলে কল করলেও তাদের পাওয়া যায়নি।

চিলমারী (কুড়িগ্রাম) : চিলমারী, রৌমারী ও রাজিবপুর উপজেলার সংরক্ষিত মহিলা সদস্য সুফিয়া খাতুনের প্রচারণায় হামলার ঘটনায় শনিবার রাতে আবুল কালাম একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সুফিয়া খাতুন ওই দিন দুপুরে নির্বাচনি প্রচারে চিলমারীতে গেলে কলেজ মোড়ে কয়েকজন দুর্বৃত্ত তার ওপর ঢিল ছোড়ে এবং গাড়ি ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় চিলমারী থানায় মামলা করেছিলেন তিনি।

চট্টগ্রাম : ভোটে অনিয়ম ও জালিয়াতি ঠেকাতে প্রতিটি বুথে বসানো হয়েছে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা। ১১০ জন ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা রয়েছেন। ভোট গ্রহণের জন্য প্রতিটি উপজেলায় ১ জন প্রিসাইডিং কর্মকর্তা, ২ জন সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তা ও ৪ জন পোলিং কর্মকর্তা দায়িত্ব পালন করবেন।

সর্বশেষ - বিনোদন

salihli escort Hacklink istanbul escort Kamagra Levitra Novagra Geciktirici
//whairtoa.com/4/5519413
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com