কাফনের কাপড় পরে প্রতীক আনতে যাওয়া সেই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ | টুডে বিডি ২৪
সোমবার , ২ মে ২০২২ | ১৮ই আশ্বিন ১৪২৯
  1. অন্যান্য
  2. আন্তর্জাতিক
  3. আয় করুন
  4. আলোচিত সংবাদ
  5. খুলনা
  6. খেলাধুলা
  7. চট্টগ্রাম
  8. জাতীয়
  9. জেলার খবর
  10. টিপস
  11. ঢাকা
  12. তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি
  13. ধর্ম
  14. নিউজ
  15. প্রেরণা
সর্বশেষ খবর টুডে বিডি ২৪ গুগল নিউজ চ্যানেলে।
   

কাফনের কাপড় পরে প্রতীক আনতে যাওয়া সেই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

                                           প্রতিবেদক
News Desk
মে ২, ২০২২ ৩:০৭ পূর্বাহ্ণ

ভোলার বোরহানউদ্দিনে কাফনের কাপড় পরে প্রতীক আনতে যাওয়া পক্ষিয়া ইউনিয়নের বিজয়ী বিদ্রোহী চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন সর্দারের বিরুদ্ধে অত্যাচার, নির্যাতন, রেশন কার্ড, জেলে ভাতা বিতরণে অনিয়মের প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোক।

রোববার বেলা ১২টার দিকে উপজেলার সর্ববৃহৎ বাজার বোরহানগঞ্জের ভোলা-চরফ্যাশন সড়কে ওই কর্মসূচি পালন করে। এছাড়া ওই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৯ জন ইউপি সদস্য অনাস্থার প্রস্তুতি নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তরে গিয়েছেন বলেও জানা গেছে।রোববার বোরহানগঞ্জ বাজারের পশ্চিম বাজার থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়ে বাজারের গুরুত্বপূর্ণ সড়কসমূহ প্রদক্ষিণ করে ভোলা-চরফ্যাশন সড়কের পাশে সমাবেশ করে। সমাবেশে আলাউদ্দিন সর্দারের বিরুদ্ধে অত্যাচার, নির্যাতনের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে বক্তৃতা করেন পক্ষিয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগে সভাপতি সাবেক মেম্বার মো. হোসেন,ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. নাজিমউদ্দিন, ৪ নাম্বার ওয়ার্ডের আ’লীগ সভাপতি নিরব মিয়া, ছাত্রলীগ নেতা মো. শাকিল প্রমুখ।

বিক্ষোভে অংশ নেয়া ৪ নাম্বার ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ সভাপতি ৬৪ বছর বয়সী নিরব মিয়া জানান, তার একটি রেশন কার্ড আছে। ওই কার্ড ডিলারের কাছ থেকে চেয়ারম্যান নিয়ে যায়। ইউনিয়ন পরিষদে কার্ড আনতে গেলে তাকে লাঞ্ছিত করে। এক পর্যায়ে সে দৌড়ে এক ভবনের তিন তলায় আশ্রয় নেন। পরে থানা পুলিশের সহায়তায় তাকে উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন:  নারায়ণগঞ্জের সাবেক এমপি গিয়াস উদ্দিনের বাড়িতে পুলিশের অভিযান

ছাত্রলীগ নেতা মো. শাকিল জানান, নৌকার ভোট করায় আলাউদ্দিন চেয়ারম্যানের লোক ভোলা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের সামনে মারধর করে মোটরসাইকেল, টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায়।

এদিকে ইউপি সদস্য মো. নোমান, মো. মামুন জানান, গত বৃহস্পতিবার তারা ৯ সদস্য চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তরে যান। ওই সময়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাদের কিছুটা ধৈর্য ধরতে পরামর্শ দেন বলে তারা দাবি করেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান মো. আলাউদ্দিন সর্দারের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি জানান, অভিযোগ মিথ্যা ও বানোয়াট। একটি মহল তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে।

সর্বশেষ - বাংলাদেশ

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
Copy link
Powered by Social Snap